আন্তর্জাতিক

শতাব্দীর সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ঝুঁকির সম্মুখীন ব্রিটেন : বরিস

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ব্রিটেনে তিন সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

তিনি বলেন, লকডাউন চলাকালে একবার ব্যায়াম, জরুরি পণ্য সামগ্রী ও ওষুধ কেনা ছাড়া ঘরের বাইরে যাওয়া যাবে না। একসঙ্গে দু’জনের বেশি জমায়েত হওয়া যাবে না। আইন ভঙ্গকারীদের ৩০ পাউন্ড করে জরিমানা করা হবে। কেউ নির্দেশ অমান্য করলে পুলিশ ব্যবস্থা নিতে পারব।

সোমবার স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ৮টায় লন্ডনে জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই তিন সপ্তাহে নিত্য-প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দোকানপাট ছাড়া সবকিছুই বন্ধ থাকবে। আপনারা অবশ্যই বাসায় অবস্থান করবেন। লাইব্রেরি, খেলার স্থান, ব্যায়ামাগার এমনকি উপাসনালয়ও বন্ধ থাকবে বলে ঘোষণা দেন তিনি। পার্ক খোলা থাকলেও জনসমাগম সীমিত থাকবে।

সামাজিক অনুষ্ঠান, বিয়ে ও ধর্মীয় সমাবেশ বন্ধের ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, ‘তিন সপ্তাহ পর পরিস্থিতি বুঝে পরবর্তী করণীয় ঠিক করা হবে।’

বরিস জনসন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘করোনাভাইরাস মোকাবেলায় শতাব্দীর সবচেয়ে ভয়ংকর ঝুঁকির সম্মুখীন ব্রিটেন। এই ভাইরাসের বিস্তার রুখতে না পারলে এক ভয়ানক পরিস্থিতির মুখোমুখি হব আমরা। সবার ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসে এই ভাইরাসের বিস্তৃতি এখনই ঠেকাতে হবে। তা না হলে এমন একটি সময় আসবে যখন বিশ্বের কোনো স্বাস্থ্য ব্যবস্থাই এই ভাইরাসের মোকাবেলা করতে পারবে না। কারণ, মৃত্যুর হার তখন এমন পর্যায়ে পৌঁছাবে যে চিকিৎসার জন্য ডাক্তার, নার্স এমনকি ভেনটিলেট, ইনটেনসিভ বেড কিছুই পাওয়া যাবে না।’

ব্রিটেনে সোমবার পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৬৫০ জন, যাদের মধ্যে মারা গেছেন ৩৩৫ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ১৩৫ জন।

সূত্রঃ বাংলাদেশ প্রতিদিন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Blocker Detected

Please Remove your browser ads blocker