বাংলাদেশ

বাংলাদেশকে ২০ লাখ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন দিচ্ছে ভারত

করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে বাংলাদেশকে ২০ লাখ জীবন রক্ষাকারী হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ওষুধ দিচ্ছে ভারত।ম্যালেরিয়ারবিরোধী এ ওষুধটি করোনারভাইরাসের বিরুদ্ধে কিছু ক্ষেতে কার্যকরী ভূমিকা রাখছে বলে জানিয়েছে ভারত সরকার। খরব ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির।

খবরে বলা হয়েছে, দেশটির তৈরি করা প্রথম তালিকায় বাংলাদেশসহ ১৩টি দেশ রয়েছে। অন্য দেশগুলো হল-যুক্তরাষ্ট্র, স্পেন, জার্মানি, বাহরাইন, ব্রাজিল, নেপাল, ভুটান, শ্রীলংকা, আফগানিস্তান ও মালদ্বীপসহ কয়েকটি দেশ।

সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের কাছ থেকে যুক্তরাষ্ট্র ৪৮ লাখ এইচসিকিউ ট্যাবলেট চেয়েছিল। দিল্লি ৩৫ লাখ ৮২ হাজার ট্যাবলেটের অনুমোদন দেয়। ইতিমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রকে এ ওষুধের একটি চালান পাঠিয়েছে ভারত। এর মধ্যে এ ওষুধ প্রস্তুতের জন্য ৯ মেট্রিক টন কাঁচামালও রয়েছে।

ব্রাজিল ও কানাডা ৫০ লাখ করে ট্যাবলেট পাবে দ্বিতীয় চালানে। প্রথম চালানে ব্রাজিলকে ০.৫৩ মেট্রিক টন কাঁচামাল (এপিআই) দেয়া হবে।

সূত্র জানায়, বাংলাদেশ ২০ লাখ, নেপাল ১০ লাখ, ভুটান ২ লাখ, আফগানিস্তান ৫ লাখ ও মালদ্বীপ ২ লাখ এইচসিকিউ ট্যাবলেট পাবে। দ্বিতীয় চালানে শ্রীলঙ্কা পাবে ১০ লাখ ট্যাবলেট।

দ্বিতীয় দফায় জার্মানিকে ৫০ লাখ ট্যাবলেট দেওয়া হবে। প্রথম চালানে দেশটি ১.৫ মেট্রিক টন কাঁচামাল পাচ্ছে।

এছাড়া যেসব দেশ এইচসিকিউ ট্যাবলেট পাবে সেগুলো হলো সিসিলিস ও ডমিনিকান রিপাবলিক। সূত্র জানায়, ভারত মোট ১৪ মিলিয়ন ট্যাবলেট ও ১৩.৫ মেট্রিক টন কাঁচামাল সরবরাহ করবে।

এর আগে ভারত সরকার নিজেদের অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটানোর কথা বলে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ও ব্যথা উপশমকারী প্যারাসিটামল ট্যাবলেট রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নাখোশ হয়ে ভারতের সমালোচনা করেন। এর পরিণতি খারাপ হবে বলেও হুশিয়ারি দেন।

পরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চাপের মুখেই ভারত ম্যালেরিয়াবিরোধী হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ওষুধ সরবরাহ করতে রাজি হয়েছে। বলা হচ্ছে, ভারত সবচেয়ে বেশি হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ওষুধ তৈরি করে থাকে।যা বিশ্বে চাহিদার প্রায় ৭০ শতাংশ।

ট্রাম্পের হুমকির পরেই গত মঙ্গলবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেছেন, ভারত সব সময়েই আন্তর্জাতিক সংহতি ও সহযোগিতার কথা বলে এসেছে। তিনি বলেন, ‘এই মহামারীর সময়ে মানবতার কথা ভেবে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে যে, ভারত প্যারাসিটামল ও হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের মতো ওষুধ যথাযথ পরিমাণে আমাদের প্রতিটি প্রতিবেশী দেশকে সরবরাহ করবে। যে সব দেশ করোনায় মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সেখানেও আমরা এই প্রয়োজনীয় ওষুধ সরবরাহ করব।’

ম্যালেরিয়াপ্রতিরোধী এ ওষুধটি সরবরাহ করা হবে এমন খবরে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রসংশা করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, মোদি সত্যিকার অর্থে একজন ভালো মানুষ।

সূত্রঃ যুগান্তর

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Blocker Detected

Please Remove your browser ads blocker