আন্তর্জাতিক

করোনার চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপির প্রথম সাফল্য পেল ভারত, উচ্ছ্বসিত চিকিৎসকরা

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক নিয়ে যখন চিন্তিত গোটা বিশ্ব, তখন আশার আলো জ্বালাল ভারতের দিল্লির এক করোনা রোগী। দেশের প্রথম করোনা রোগী হিসেবে প্লাজমা থেরাপির মাধ্যমে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠলেন ৪৯ বছরের ওই ব্যক্তি।

গত ৪ এপ্রিল তিনি করোনা পজিটিভ হন। কিন্তু প্লাজমা থেরাপির দৌলতে করোনাকে কুপোকাত করে দেন তিনি। তার এই ফলপ্রদ চিকিৎসায় যারপরনাই আশার আলো দেখছে চিকিৎসক মহল।

জানা গেছে, ওই ব্যক্তি প্রাথমিক উপসর্গ নিয়ে দিল্লির ম্যাক্স হাসপাতালে ভর্তি হন। কিন্তু কয়েকদিনের মধ্যে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে। তখন তাকে অক্সিজেন দেওয়া হয়। এরপর তার নিউমোনিয়া হয়ে যায়। ৮ এপ্রিল তাকে ভেন্টিলেশনে স্থানান্তর করা হয়। সুস্থতার কোনও লক্ষণ না দেখতে পেয়ে রোগীর পরিজনরা চিকিৎসকদের প্লাজমা থেরাপির অনুরোধ জানান। তিনিই প্রথম করোনা রোগী যার উপর এই চিকিৎসা পদ্ধতি প্রয়োগ করা হয়।
এরপর শুরু হয় রক্তদাতা খোঁজার পালা। একজন সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা ব্যক্তির রক্তের প্লাজমা দিয়ে শুরু হয় চিকিৎসা। এরপর ফল মিলতে শুরু করে ধীরে ধীরে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, কোনও রক্তদাতা ৪০০ মিলি পর্যন্ত প্লাজমা দান করতে পারে। এতে দুজনের জীবন বাঁচানো যেতে পারে। প্লাজমা থেরাপির দৌলতে চিকিৎসায় সাড়া দিতে শুরু করেন ওই রোগী। গত ১৮ এপ্রিল তাকে ভেন্টিলেটর থেকে বাইরে আনা হয়। আর রবিবার তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে ডিসচার্জ হয়ে যান।

এই অভুতপূর্ব সাফল্য পেয়ে উচ্ছ্বসিত দিল্লির চিকিৎসকরা। আগামী দিনে এই প্লাজমা থেরাপির মাধ্যমে আরও রোগীর চিকিৎসার প্রস্তুতি নিচ্ছেন ডাক্তাররা। প্রতিটি ক্ষেত্রে সফল হলে করোনাকে অনায়াসে হারানো যাবে বলে করছেন তারা। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

সূত্রঃ বাংলাদেশ প্রতিদিন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Blocker Detected

Please Remove your browser ads blocker