বাংলাদেশ

স্বজনহীনদের পাশে দেশপ্রেমিক

মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য। সত্যিই তাই। বিপদে মানুষই মানুষের পাশে দাঁড়ায়। তেমনি করোনায় মৃত ব্যক্তিদের পাশে যখন কেউ ছিলেন না, বাবা-মা ছেড়ে গেছেন সন্তানকে, স্বামী স্ত্রীকে, স্ত্রী স্বামীকে, সন্তান বাবা-মাকে। তখন অনেকের মত পাশে দাঁড়িয়েছেন তারা। নিজের পরিবার, নাওয়া-খাওয়া, জীবন-জীবিকা সব ভুলে এগিয়ে এসেছেন মানবতার কল্যাণে।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) পুলিশ পরিবারের নারীদের ঐতিহ্যবাহী সংগঠন ‘বাংলাদেশ পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতির (পুনাক)’ এক অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন।

পুনাক সভানেত্রী জীশান মীর্জার সভাপতিত্বে রাজধানীর রমনায় পুনাক ভবনের সম্মেলন কক্ষে জীশান মীর্জা বলেন, স্বপ্রণোদিত হয়ে যারা করোনায় মৃত ব্যক্তিদের লাশ দাফন ও সৎকার করেছেন তাদের মতো মহৎ ব্যক্তিদের সম্মাননা জানাতে পেরে পুনাক গর্ববোধ করছে।

করোনায় আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসায় কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের অবিস্মরণীয় অবদান অর্জন করেছে।

করোনাক্রান্ত হয়ে কেউ মারা গেলে যখন আপনজনরা পাশে ছিলেন না তখন আপনাদের মতো পুলিশ সদস্যরাও জানাজা পড়িয়েছেন, দাফন/সৎকার করেছেন। তিনি মানব কল্যাণে এগিয়ে আসার জন্য সকল দাতব্য প্রতিষ্ঠান ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

অনুষ্ঠানে মোট ১৯ জন স্বেচ্ছাসেবীকে সম্মাননা স্মারক ও আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়।

পুনাকের প্রচার ও সাংস্কৃতিক সম্পাদিকা নাসিম আমিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন এসবি’র অতিরিক্ত ডিআইজি রখফার সুলতানা খানম এবং সমাজ সেবক সায়কা শারমিন।

এর আগে অনুষ্ঠানে করোনায় মৃত ব্যক্তিদের দাফন/সৎকারে সহায়তাকারীরা তাদের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে যে সকল অপ্রীতিকর ও অসহযোগিতাপূর্ণ পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছিলেন তা বর্ণনা করেন।

সূত্রঃ রাইজিংবিডি.কম

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Blocker Detected

Please Remove your browser ads blocker