বিনোদন

যেভাবে বদলে গেলো অস্কার

করোনা মহামারির কারণে বোঝাই যাচ্ছিলো, চলচ্চিত্র দুনিয়ার সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কার অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের ৯৩তম আসর হবে অন্যরকম। সত্যিই ভিন্ন আমেজ পাওয়া গেছে পুরো আয়োজনে। হলিউডের ডলবি থিয়েটারের পরিবর্তে লস অ্যাঞ্জেলসের রেলস্টেশনে মঞ্চ সাজানো হয়। মনোনয়নপ্রাপ্তদের বাইরে খুব কমসংখ্যক অতিথিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। বাকি মনোনীতরা প্যারিস, প্রাগ, সিডনিসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে লাইভ ক্যামেরায় যুক্ত হয়েছেন। নির্ধারিত সময়ের দুই মাস পর হওয়া এই আয়োজনের উল্লেখযোগ্য কিছু দিক একনজরে।

** টানা তৃতীয়বারের মতো কোনো সঞ্চালক ছিলেন না।

** নির্মাতা ও অস্কারজয়ী অভিনেত্রী রেজিনা কিং মঞ্চে হাজির হওয়ার মাধ্যমে মূল অনুষ্ঠান শুরু হয়। ষাটের দশকে মানবাধিকার বিপ্লবে চার কৃষ্ণাঙ্গের যুগান্তকারী ভূমিকা নিয়ে ‘ওয়ান নাইট ইন মায়ামি’ পরিচালনা করে প্রশংসিত হয়েছেন তিনি। জর্জ ফ্লয়েড হত্যায় শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা দোষী সাব্যস্ত হওয়ার বার্তা দিয়ে তিনি মঞ্চে বলেন, ‘সত্যি বলছি, মিনিয়াপলিসে যদি (সাজার পরিবর্তে) অন্যকিছু হতো তাহলে বিক্ষোভ করতে রাস্তায় নেমে পড়তাম।’

** জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর মুহূর্তটি মোবাইল ফোনে ধারণ করা ডারনেলা ফ্রেজিয়ারের কথা মূকাভিনয়ে উল্লেখ করেন আমেরিকান অভিনেত্রী মার্লি ম্যাটলিন।

** কৃষ্ণাঙ্গ অভিনেতা-নির্মাতা টাইলার পেরি পেয়েছেন হিউম্যানিটারিয়ান অ্যাওয়ার্ড। তার নাম ঘোষণা করেন কৃষ্ণাঙ্গ অভিনেত্রী ভায়োলা ডেভিস। নিজের অনুভূতিতে টাইলার পেরি সবার প্রতি ঘৃণাকে না বলার আহ্বান জানিয়েছেন।

** যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গদের হত্যার চিত্র নিয়ে নির্মিত ‘টু ডিস্ট্যান্ট স্ট্রেঞ্জারস’ সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র হয়েছে। এর দুই পরিচালক ট্রেভন ফ্রি ও মার্টিন ডেসমন্ড রো নিজেদের পোশাকে ২৪ ও ২ সংখ্যাটি যুক্ত করে বাস্কেটবল কিংবদন্তি কোবি ব্রায়ান্ট ও তার মেয়েকে সম্মান জানান। খেলোয়াড় জীবনে কোবি ব্রায়ান্টের জার্সি নম্বর ছিল ২৪। আর তাঁর মেয়ে জিয়ানা খেলতেন ২ নম্বর জার্সি পরে। এছাড়া দুই পরিচালকের টাক্সেডোতে ছিলো পুলিশের হাতে নিহত ১৭ কৃষ্ণাঙ্গের নাম।

** অন্যান্যবারের মতো শুরুতে কৌতুক এবং মাঝে নাচ-গানের পসরা ছিলো না।

** মনোনীত কারও ছবির দৃশ্য দেখানো হয়নি। বিজয়ীরা নিজেদের অনুভূতি জানানোর পর বাজেনি কোনো সুর।

** করোনা পরীক্ষার পর আমন্ত্রিতদের ইউনিয়ন স্টেশনের ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়েছে। এজন্য অনুষ্ঠান চলাকালে কারও মুখে মাস্ক ছিলো না। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে আসনবিন্যাসে ছিলো নতুনত্ব।

** ১৯৩০ দশকের জ্যাজ ক্লাবের আবহে সাজানো হয় অস্কার মঞ্চ। ইউনিয়ন স্টেশনে ছিলো মনোনীতদের চিত্রকর্ম।

** অ্যাকাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেসের ৯ হাজার সদস্যের ভোটে বিজয়ীরা নির্বাচিত হয়েছেন।

** সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার ঘোষণা করা হয় সেরা অভিনেতা ও সেরা অভিনেত্রীর নাম জানানোর আগেই। সাধারণত অস্কারে সবশেষে সেরা চলচ্চিত্রের ট্রফি দেওয়া হয়। সেরা পরিচালক শাখার পুরস্কারও দেওয়া হয়েছে আগেভাগে। সেরা অভিনেতা শাখার পুরস্কার সবশেষে দেওয়ায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। কারণ বিজয়ী অ্যান্থনি হপকিন্স অনুষ্ঠানে ছিলেন না। আর সেরা অভিনেতা শাখার আরেক ফেবারিট চ্যাডউইক বোজম্যান বেঁচে নেই।

** অস্কারের ইতিহাসে দ্বিতীয় নারী নির্মাতা হিসেবে সেরা পরিচালক শাখার পুরস্কার জিতেছেন ক্লোয়ি জাও। তিনিই প্রথম অশ্বেতাঙ্গ নারী নির্মাতা যিনি এই স্বীকৃতি পেলেন। ‘নোম্যাডল্যান্ড’ ছবির সুবাদে এসব ইতিহাস গড়েছেন ৩৯ বছর বয়সী এই পরিচালক। অস্কারের ৯২ বছরের ইতিহাসে এর আগে সেরা পরিচালক হওয়া একমাত্র নারী নির্মাতা ছিলেন ক্যাথরিন বিগেলো ‘দ্য হার্ট লকার’ (২০১০)।

** ‘নোম্যাডল্যান্ড ছবিতে অপেশাদার যাযাবরেরা অভিনয় করেছেন। তাদের মধ্যে শার্লেন সোয়াঙ্কিকে সঙ্গে নিয়ে লালগালিচায় হেঁটেছেন চীনা বংশোদ্ভুত আমেরিকান নির্মাতা ক্লোয়ি জাও।

** সর্বাধিক তিনটি পুরস্কার জিতেছে ‘নোম্যাডল্যান্ড’। এতে যাযাবর নারীর ভূমিকায় অনবদ্য নৈপুণ্যের সুবাদে সেরা অভিনেত্রী হয়েছেন ফ্রান্সিস ম্যাকডোরম্যান্ড। এর আগে আরও দুবার পুরস্কারটি জিতেছেন তিনি। ফলে পৃথিবী গ্রহে এখন কেবল তার ঝুলিতেই আছে সেরা অভিনেত্রী শাখার তিনটি অস্কার।

** ‘নোম্যাডল্যান্ড’ ছবির সাউন্ড মিক্সার মাইকেল উলফ স্নাইডার গত মাসে আত্মহত্যা করেন। তার বয়স হয়েছিল মাত্র ৩৫ বছর। তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ফ্রান্সিস ম্যাকডোরম্যান্ড নেকড়ের মতো গর্জন করে দর্শকদের সিনেমা হলে ফেরার ডাক দেন।

** সর্বাধিক ১০টি মনোনয়ন পাওয়া ‘ম্যাঙ্ক’ সেরা হয়েছে কেবল দুটি কারিগরি শাখায়। এছাড়া সাউন্ড অব মেটাল, ‘জুডাস অ্যান্ড দ্য ব্ল্যাক মেসায়া’, “মা রেইনি’স ব্ল্যাক বটম” এবং ‘সৌল’ দুটি করে পুরস্কার পেয়েছে।

** স্যার অ্যান্থনি হপকিন্স সবচেয়ে বেশি বয়সী হিসেবে অস্কারের সেরা অভিনেতা শাখার পুরস্কার জিতলেন। ‘দ্য ফাদার’ ছবির মাধ্যমে এটি অর্জন করলেন এই ওয়েলশ তারকা। অনুষ্ঠানে ছিলেন না তিনি। ‘৮৩ বছর বয়সে এসে এই পুরস্কার পাওয়ার প্রত্যাশা করিনি, সত্যিই করিনি’— বলেছেন অ্যান্থনি হপকিন্স। ২৯ বছর আগে ‘দ্য সাইলেন্স অব দ্য ল্যাম্বস’ ছবির জন্য অস্কারের সেরা অভিনেতা হয়েছিলেন তিনি। এবার তার জয় ছিলো বড় চমক। কারণ ধারণা করা হচ্ছিলো, গত বছর ক্যান্সারে মারা যাওয়া চ্যাডউইক বোজম্যান “মা রেইনি’স ব্ল্যাক বটম” ছবির জন্য সেরা অভিনেতা হবেন। তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন অ্যান্থনি হপকিন্স।

** প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ ব্রিটিশ অভিনেতা হিসেবে অস্কার জিতেছেন ড্যানিয়েল কালুইয়া। ‘জুডাস অ্যান্ড দ্য ব্ল্যাক মেসায়া’র জন্য সেরা পার্শ্ব অভিনেতা শাখার পুরস্কার গেছে তার ঘরে। ছবিটিতে ব্ল্যাক প্যান্থার পার্টির নেতা ফ্রেড হ্যাম্পটনের ভূমিকায় অসাধারণ মুন্সিয়ানা দেখিয়েছেন ৩২ বছর বয়সী এই তারকা।

** দক্ষিণ কোরিয়ার প্রথম অভিনেত্রী হিসেবে অস্কার জিতেছেন ইয়া-জাঙ উন। আমেরিকা প্রবাসী কোরিয়ান একটি পরিবারকে ঘিরে সাজানো ‘মিনারি’ ছবিতে দাদির চরিত্রে অসামান্য অভিনয় করেছেন ৭৩ বছর বয়সী এই নারী। তিনি পেয়েছেন সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রীর সম্মান।

** সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী শাখায় মনোনীতদের মধ্যে ছিলেন গ্লেন ক্লোজ। অস্কারে এটি ছিলো তার অষ্টম মনোনয়ন। আগের সাতবারের মতোই তিনি ফিরেছেন শূন্য হাতে।

** প্রথম ব্রিটিশ নারী হিসেবে সেরা মৌলিক চিত্রনাট্য শাখার পুরস্কার পেয়েছেন এমারেল্ড ফেনেল। ‘প্রমিসিং ইয়াং ওম্যান’-এর সুবাদে এই অর্জনের মালিক হয়েছেন তিনি। এটাই তার পরিচালিত প্রথম ছবি। এর আগে অভিনেত্রী হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন তিনি। ট্রফি গ্রহণের পর এমারেল্ড ফেনেল জানান, ২৩ দিনে ছবিটির চিত্রায়ন শেষের সময় সন্তানসম্ভবা ছিলেন তিনি।

** সেরা রূপসজ্জা ও চুলসজ্জা শাখায় সেরা হয়েছে “মা রেইনি’স ব্ল্যাক বটম”। পুরস্কারটি ভাগাভাগি করেছেন সের্গিও লোপেজ-রিভেরা, মিয়া নিল ও জেমিকা উইলসন। তাদের মধ্যে মিয়া ও জামিকা প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ হিসেবে এই পুরস্কার পেয়ে ইতিহাস গড়েছেন।

** “মা রেইনি’স ব্ল্যাক বটম সেরা পোশাক পরিকল্পনা শাখায়ও সেরা হয়েছে। এটি পেয়েছেন ৮৯ বছর বয়সী অ্যান রোথ। সবচেয়ে বেশি বয়সে অস্কারজয়ের রেকর্ড এখন তার দখলে।

** এবারের বাফটা অ্যাওয়ার্ডসের সেরা চলচ্চিত্র, সেরা পরিচালক, সেরা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র, সেরা অ্যানিমেটেড ছবি, সেরা অভিনেতা, সেরা অভিনেত্রী, সেরা পার্শ্ব অভিনেতা, সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী, সেরা মৌলিক চিত্রনাট্য, সেরা অ্যাডাপ্টেড চিত্রনাট্য এবং সেরা প্রামাণ্যচিত্র শাখায় বিজয়ীরা অস্কারেও জিতেছে।

** সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য প্রামাণ্যচিত্র শাখায় সেরা হয়েছে ‘কলেট’। এর গল্প দ্বিতীয় বিশ্বযু্দ্ধে ফ্রান্সে নাৎসী জার্মানদের কর্মসংস্থান বিরোধী বিপ্লবের সদস্য কলেট মাহা-ক্যাথেরিনকে ঘিরে। ১৯৪৫ সাল থেকে জার্মানিতে পা রাখতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছিলেন তিনি। কিন্তু লুসি নামের ইতিহাস পড়ুয়া এক ছাত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর তার মনোভাব বদলে যায়। তাই তিনি জার্মানি ভ্রমণে গিয়েছিলেন, যেখানে নাৎসী বন্দিশিবিরে তার ভাই জ্যঁ-পিয়েরেকে হত্যা করা হয়েছিল। অস্কার প্রদানের দিন (২৫ এপ্রিল) তার জন্মদিন।

** স্বল্পদৈর্ঘ্য অ্যানিমেটেড ছবি শাখায় পুরস্কার পেয়েছে ‘ইফ অ্যানিথিং হ্যাপেনস, আই লাভ ইউ’। শোকাহত মা-বাবাকে ঘিরে এর গল্প। বন্দুক হামলায় প্রিয়জনকে হারানো সবার প্রতি পুরস্কারটি উৎসর্গ করেন পরিচালক উইল ম্যাককরম্যাক ও মাইকেল গোভিয়ার।

** সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী শাখায় মনোনীত বুলগেরিয়ার মারিয়া বাকালোভা ছয় মিটার চওড়া সাদা গাউন পরে এসেছিলেন। এর ডিজাইন করেছে লুই ভুটন। মারিয়ার পোশাকের দৈর্ঘ্য আর সামাজিক দূরত্বের সীমা একই।

** লালগালিচায় হৃদয় আকৃতির ভ্যানিটি ব্যাগ এনে নজর কেড়েছে ব্রিটিশ গায়িকা সেলেস্ট। এটি বানিয়েছে গুচি।

** এবারের আসরে বিভিন্ন শাখা মিলিয়ে ১৫ জন নারী রেকর্ডসংখ্যক ১৭টি অস্কার ট্রফি জিতেছেন।

** ওয়াল্ট ডিজনি কোম্পানির মালিকানাধীন সার্চলাইট পিকচার্সের নামের পাশে ‘নোম্যাডল্যান্ড’-এর মাধ্যমে গত আট বছরে চারবার সেরা চলচ্চিত্র পুরস্কার জমা হলো। ডিজনির আরেক প্রতিষ্ঠান পিক্সার স্টুডিও ‘সৌল’ ছবির মাধ্যমে দুটি পুরস্কার পেয়েছে। নেটফ্লিক্স এবারের অস্কারে ‘ম্যাঙ্ক’সহ মোট সাতটি ট্রফি জড়ো করতে পেরেছে। ‘জুডাস অ্যান্ড দ্য ব্ল্যাক মেসায়া’র জন্য দুটিসহ তিনটি পুরস্কার পেয়েছে ওয়ার্নার ব্রাদার্সের মালিকানাধীন এটিঅ্যান্ডটি ইনকরপোরেশন। অ্যামাজন প্রাইমকে দুটি পুরস্কার এনে দিয়েছে ‘সাউন্ড অব মেটাল’।

** সেরা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র হয়েছে ডেনমার্কের ‘অ্যানাদার রাউন্ড’। এ নিয়ে দেশটিতে চারবার অস্কার গেলো। আগের তিনটি ছবি ছিলো ‘বাবেটস ফিস্ট’ (১৯৮৭), পেল দ্য কনকোয়েরর (১৯৮৯) এবং ইন অ্যা বেটার ওয়ার্ল্ড (২০১১ুত্র

সূত্রঃ ইত্তেফাক/জেএইচ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Blocker Detected

Please Remove your browser ads blocker