অপরাধবাংলাদেশ

পি কের ঋণের টাকার ভাগ নেওয়ায় ব্যাংকের পদ গেল সাহিদ রেজার

বহুল আলোচিত প্রশান্ত কুমার (পি কে) হালদারের ঋণের টাকার ভাগ নেওয়ায় মার্কেন্টাইল ব্যাংকের পরিচালক পদ হারিয়েছেন এ কে এম সাহিদ রেজা। গতকাল মঙ্গলবার তাঁকে পরিচালক পদ থেকে অপসারণের সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বিষয়টি তদন্ত শেষে বাংলাদেশ ব্যাংকের স্থায়ী কমিটিতে শুনানি হয়। এরপর গতকাল গভর্নর ফজলে কবির এই অপসারণ আদেশে সই করেন। পাশাপাশি আগামী দুই বছর ব্যাংক খাতে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে সাহিদ রেজার যেকোনো ধরনের অংশগ্রহণের ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

আদেশে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর বলেন, এ কে এম সাহিদ রেজা ব্যাংক ও আমানতকারীদের স্বার্থের জন্য ক্ষতিকর এবং জনস্বার্থ পরিপন্থী কার্যকলাপে লিপ্ত হয়েছেন। স্থায়ী কমিটি তাঁকে অপসারণের সুপারিশ করেছে। এ জন্য তাঁকে অপসারণের আদেশ প্রদান করা হলো।

এ নিয়ে যোগাযাোগ করলে এ কে এম সাহিদ রেজা বলেন, ‘আমার ঋণ নিয়মিত আছে। ইন্টারন্যাশনাল লিজিং আমাকে ঋণ দিয়েছে, কিছু হিসাবে অন্য প্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ করেছিল। এ কারণে আমার বিরুদ্ধে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আমি এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ব্যাংক পর্ষদের কাছ আপিল করব।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের তদন্তে উঠে আসে, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং থেকে পি কে হালদার যেসব প্রতিষ্ঠানের নামে টাকা বের করে নিয়েছিলেন, তার মধ্যে ২৮ কোটি টাকা পেয়েছেন মার্কেন্টাইল ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ও বর্তমান পরিচালক এ কে এম সাহিদ রেজা। এর মধ্যে এমটিবি মেরিন লিমিটেডের নামে ৬০ কোটি টাকার ঋণ অনুমোদন হয় ২০১৭ সালের ৩০ জানুয়ারি।

সূত্রঃ প্রথম আলো

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Blocker Detected

Please Remove your browser ads blocker