আন্তর্জাতিক

পুতিন-শি সম্পর্ক কোন দিকে

ইউক্রেন ইস্যুতে পশ্চিমাদের সঙ্গে সম্পর্ক অনেকটা তলানিতে ঠেকেছে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের। ঠিক এমন মুহূর্তে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের দিকে পুতিন।  

শুক্রবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বেইজিংয়ে শীতকালীন অলিম্পিকের আসর বসতে যাচ্ছে। এ নিয়ে শি বিশ্বের বিভিন্ন নেতাকে স্বাগত জানাচ্ছেন। গত ৪০০ দিনের বেশি সময় পর শি মুখোমুখিভাবে বিদেশি নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন। এর মধ্যে শির অতিথি তালিকার শীর্ষে রয়েছেন পুতিন।

শীতকালীন অলিম্পিকের আসরে বিশ্বের যে কয়েকজন নেতা শির সঙ্গে দেখা করছেন, তার মধ্যে পুতিন একজন। অন্যদিকে পশ্চিমাদের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন ও অস্ট্রেলিয়া চীনের মানবাধিকার রেকর্ডের ওপর কূটনৈতিক বয়কট ঘোষণা করেছে।

কার্নেগি মস্কো সেন্টারে এশিয়া-প্যাসিফিক প্রোগ্রামে রাশিয়ার একজন সিনিয়র ফেলো ও প্রধান অ্যালেকজান্ডার গাবুয়েভ বলেছেন, ‘পশ্চিমার সঙ্গে রাশিয়ার সংঘর্ষ একইভাবে পশ্চিমার সঙ্গে চীনের সংঘর্ষ একটি অত্যন্ত নাটকীয় মুহূর্ত।’

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বেইজিং ও মস্কো বাণিজ্য, প্রযুক্তি ও সামরিক মহড়ার সমন্বয়ে তাদের অংশীদারিত্বকে বাড়িয়ে তুলছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে পুতিনের সঙ্গে ভিডিও কলে শি চীন ও রাশিয়াকে  ‘আন্তর্জাতিক বিষয়ে সমন্বয় ও সহযোগিতা বাড়াতে’ আহ্বান জানান। পাশাপাশি ‘আধিপত্যবাদী কাজ ও শীতল যুদ্ধের মানসিকতা’ প্রত্যাখ্যানের আহ্বান জানান।

এছাড়া, সে সময় শি পুতিনকে তার ‘পুরনো বন্ধু’ বলে অভিহিত করেন। শি জানান, তিনি অলিম্পিকে পুতিনের সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য ‘অধীর অপেক্ষায় আছেন’।

এদিকে ইউক্রেন ইস্যুতে পুতিন ও তার কাছের নেতাদের ওপর কড়া নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছে বাইডেন প্রশাসন। এছাড়া ব্রিটেন ন্যাটো, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ইউক্রেনে হামলার জবাবে রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞার হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

সূত্র: সিএনএন, বিবিসি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Blocker Detected

Please Remove your browser ads blocker