দুর্ঘটনা

মোবাইল ফোনের ভয়াবহতা!

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় সেপটিক ট্যাংকে পড়ে যাওয়া মোবাইল ফোন তুলতে গিয়ে প্রাণ গেছে দুই যুবকের। গতকাল সোমবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের বড়ঘোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দুজন হলেন দুলু মিয়া (২২) ও এনামুল হক (২১)।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম জাহাঙ্গীর জানান, দুলু মিয়া রাতে শৌচাগারে যান। তাঁর হাতে থাকা মোবাইল ফোনটি শৌচাগারের সঙ্গে খোলা সেপটিক ট্যাংকে পড়ে যায়। ফোন তোলার জন্য বাঁশ বেয়ে ট্যাংকে নামেন দুলু মিয়া। কিন্তু ওপরে উঠতে তাঁর দেরি হচ্ছিল। দুলুকে সাহায্য করতে প্রতিবেশী কলেজছাত্র এনামুল হকও ট্যাংকে নেমে পড়েন। কিন্তু দুজনের কেউই উঠে আসছিলেন না। কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে শাহিন নামের আরেক যুবক সেপটিক ট্যাংকে নামেন।

স্থানীয় লোকজন খবর দিলে ঘটনাস্থলে গিয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তিনজনকে উদ্ধার করেন। এর মধ্যে কলেজছাত্র এনামুল হক এবং দুলু মিয়াকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান। শাহিন মিয়াকে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক।

পীরগঞ্জের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরেস চন্দ্র আজ মঙ্গলবার প্রথম আলোকে বলেন, ‘সেপটিক ট্যাংকে নেমে দুজনের মৃত্যু মর্মান্তিক। দুজনই হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা গেছেন। আহত ব্যক্তির অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জেনেছি।’

সুত্রঃ প্রথম আলো

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Blocker Detected

Please Remove your browser ads blocker